লটারির মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২২

লটারির মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২২ঃ আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে জানব, লটারির মাধ্যমে ভর্তি ফলাফল প্রকাশ করা হয়, কিভাবে বেসরকারি স্কুল ভর্তি লটারি রেজাল্ট ২০২২ জানতে পারবেন, বেসরকারি স্কুলে ভর্তির লটারির ফলাফল জানবেন যেভাবে অনলাইনের মাধ্যেমে, কখন প্রকাশিত হবে। সুতরাং, এই প্রবন্ধটি অনেক মজাদার হতে চলেছে কারন এই প্রবন্ধের মাধ্যমে ভর্তির সকল তথ্য জানবেন।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এর নির্দেশ মতাবেক ভর্তি পরীক্ষা ছারাই লটারির মাধ্যমে সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা হবে, তিনি আজ রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউটে শিক্ষার্থী ভর্তির ডিজিটাল লটারির উদ্বোধন ওঅনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

লটারির মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২২
লটারির মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২২

লটারির মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২২

আপনি যদি আপনার ফলাফল জানতে চান তাহলে এই  http://gsa.teletalk.com.bd এই ওয়েবসাইট থেকে রেজাল্ট জানতে জেতে হবে। এছাড়াও আপনি জদি মোবাইলের মাধ্যমে রেজাল্ট পেতে চান তাহলে টেলিটক মোবাইল নাম্বার থেকে GSA<Space>RESULT<Space>USER ID লিখে 16222 নাম্বারে সেন্ড করতে হবে।

যেমন উদাহরণঃ GSA RESULT DFSRESGSID

পাঠাতে হবেঃ Send 16222.

শিক্ষামন্ত্রী ল্যাপটপে ভর্তির নির্ধারিত সফটওয়ারে প্রবেশ করে বাটনে চাপ দিয়ে ডিজিটাল লটারির উদ্বোধন করেন। ডিজিটাল লটারি অনুষ্ঠানে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচলক অধ্যাপক ড. মো গোলাম ফারুক উপস্থিত ছিলেন।

বেসরকারি স্কুল ভর্তি লটারি রেজাল্ট ২০২২ জানবেন

শিক্ষামন্ত্রী জানান, নামি দামি প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য অভিভাবকদের যুদ্ধ থামাতে এবং শিক্ষার্থীদের ওপর মানসিক চাপ কমিয়ে প্রতিষ্ঠানে মেধার সমন্বয় ঘটাতে আগামীতেও ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। তিনি বলেন বাবা-মা’দের ফোকাস শিক্ষার্থী কত নম্বর পেলো, কী ফলাফল হলো তার ওপর।

কিন্তু কী শিখলো, কী শিখলো না, সে দিকে নজর কম। নামি দামি স্কুলে ভর্তি করাবার অসুস্থ প্রতিযোগিতা বিভিন্ন সময় আমরা দেখেছি। আবার সেই ভর্তি করাতে গিয়ে অনেকে অনৈতিক পথ বেছে নিতে পিছ পা হন না। এসব কিছু মাথায় রেখে আমরা লটারির কথা চিন্তা করেছিলাম।

সারা দুনিয়ার আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থায় মনে করা হয়, বিভিন্ন ধরনের মেধার শিক্ষার্থীরা যখন একটি জায়গায় থাকে তখন সেটা শিক্ষার্থীদের জন্য ভালো, প্রতিষ্ঠানের জন্যও ভালো। মন্ত্রী বলেন, ‘কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে যখন স্বাস্থ্যের বিষয়টি বড় করে সামনে চলে এলো, পরীক্ষা নিলে বড় ধরনের বিপর্যয় ঘটতে পারত তখন আমরা লটারির কথা চিন্তা করেছিলাম।

তখন হয়তো কোন কোন অভিভাবকের সন্তান নামি দামি স্কুলে ভর্তি হতে পারেনি। তাদের কেউ কেউ মনোক্ষুণ্ণ হয়েছেন। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে জনগণ এটিকে ভালো বলেছেন। কারণ এর মধ্যে মেধার সমতা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে যে অনভিপ্রেত ও অসুস্থ প্রতিযোগিতা, সেটিও বন্ধ হয়েছে।

’ দীপু মনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের ওপরও ভীষণ মানসিক চাপ থাকতো। বাবা-মায়ের পছন্দের প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে না পারলে, প্রচণ্ড রকম মানসিক চাপের মধ্যে পরত। এটি শিক্ষার্থীদের শারীরিক, মানসিক স্বাস্থের জন্য কাম্য নয়, তার সঙ্গে কোচিং বাণিজ্যের একটি বড় ব্যাপর ছিলো।

লটারিতে ভর্তির কারণে কোচিং অনেকাংশে বন্ধ হয়েছে। তাই গত বছরের ধারাবাহিকতায় এবং শিক্ষা ব্যবস্থায় ইতিবাচক পরিবর্তনের ধারাবাহিকতায় আমরা ২০২২ সালেও সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে অনলাইনে লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচন করে ভর্তির উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।

আরো পড়ূনঃ

প্রেমে মানে না কোনো বাধা
বিপিএল 2022 সময় সূচি

এবারই প্রথম জেলা সদর ও মহানগর পর্যায়ের বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুওলোকে কেন্দ্রীয় লটারির আওতায় আনা হয়েছে। এর বাইরে যেসব প্রতিষ্ঠান রয়েছে তারাও লটারির মাধ্যমে করতে হবে তবে তারা নিজেরা লটারি করবেন, তবে শিক্ষা অধিদফতরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকব।

‘লটারির মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২২ – শিক্ষামন্ত্রী ডা.দীপু মনি’,

সারাদেশের সাড়ে ৪০৫টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৮০ হাজারের বেশি আসন রয়েছে। এসব আসনে ভর্তিতে ৫ লাখ ৩৮ হাজার ৮৬৬টি আবেদন এসেছে। এতে প্রতি আসনে ভর্তির জন্য ১৪ জনের কিছুটা বেশি আবেদন জমা হয়েছে।

সোমবার (১৩ ডিসেম্বর) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

মাউশি থেকে জানা গেছে, ২০২২ সালের প্রথম থেকে নবম শ্রেণিতে সরকারি স্কুলে ভর্তির জন্য গত ২৫ নভেম্বর থেকে অনলাইন আবেদন কার্যক্রম শুরু হয়। রোববার (১২ ডিসেম্বর) রাত ১২টার আগে অনলাইন আবেদন কার্যক্রম শেষ হয়েছে। সারাদেশে ৪০৫টি সরকারি স্কুলে ৮০ হাজার ১৭টি আসনে ভর্তির জন্য অনলাইন আবেদন শেষ হয়েছে। এতে ১০ লাখ ২৬ হাজার ৭৪৬টি পছন্দক্রম হিসেবে আবেদন জমা হয়েছে। এসব পছন্দক্রমের ক্ষেত্রে ৫ লাখ ৩৮ হাজার ৮৬৬ জন প্রার্থী আবেদন করেছেন। সেই হিসেবে একটি আসনের জন্য ১৪ জনের বেশি শিক্ষার্থীকে অপেক্ষায় থাকতে হবে।

জানা গেছে, সরকারি স্কুলের ভর্তি লটারি আগামী ১৫ ডিসেম্বর রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে আয়োজন করা হবে। এতে শিক্ষামন্ত্রী উপস্থিত থেকে স্কুল ভর্তির লটারি কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। ওই দিন রাতেই ফলাফল ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। তার সঙ্গে ছাত্রছাত্রীরা তাদের পছন্দের যে স্কুলে ভর্তির জন্য মনোনীত হবে সেটি মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। আর বেসরকারি স্কুলের আবেদন আগামী ১৬ ডিসেম্বর রাত ১২ পর্যন্ত চলবে। বেসরকারি স্কুলের ভর্তি লটারি ১৯ ডিসেম্বর রাজধানীর নায়েম ভবন আয়োজন করা হবে।

জানতে চাইলে মাউশির উপ-পরিচালক ও ভর্তি কমিটির সদস্য সচিব মোহাম্মদ আজিজ উদ্দিন বলেন, অভিভাবকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভর্তির আবেদনের সময় বাড়ানো হয়। রোববার রাতে সরকারি স্কুলের আবেদন শেষ হয়েছে, নতুন করে আর আবেদনের সময় বাড়ানো হবে না।

তিনি বলেন, আগামী ১৫ ডিসেম্বর সকালে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সরাকরি স্কুলের ভর্তির লটারি আয়োজন করা হবে। সেখানে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। বর্তমানে লটারি আয়োজনের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।