রোনালদো ফুটবল খেলা ৬ গোলের রোমাঞ্চ জিতে রোনালদোদের ‘৭০০’ গোল

রোনালদো ফুটবল খেলাঃ প্রথমার্ধে দুই গোল করে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তবে বিরতির পর সমতায় ফেরে লিডস ইউনাইটেড। ড্রয়ের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে রেড ডেভিল শিবিরে। এ অবস্থায় দুই বিকল্পের জাদুতে শেষের দিকে আরও দুই গোল করে ছয় গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়ে প্রিমিয়ার লিগের সবচেয়ে সফল দলটি।

রোনালদো ফুটবল খেলা – ৬ গোলের রোমাঞ্চ জিত

আজ (রোববার) ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ৪-২ গোল জিতেছে ম্যান ইউনাইটেড। রেড ডেভিলদের হয়ে গোল করেছেন হ্যারি ম্যাগুয়ার, ব্রুনো ফার্নান্দেজ, ফ্রেড ও অ্যান্টনি এলেঙ্গা। লিডসের হয়ে গোল দুটি করেছে রদ্রিগো ও রাফিনিয়া।

রোনালদো ফুটবল খেলা
রোনালদো ফুটবল খেলা

ছবিঃ টুইটার

দুই দলের আগের লেগে ঘরের মাঠে লিডসের বিপক্ষে ৫- ১ গোলে জিতেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। লিডস ইউনাইটেডের বিপক্ষে এবার এক মৌসুমে সর্বোচ্চ ৯ গোল করল রেড ডেভিলরা। সবমিলিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ইতিহাসে প্রথম দল হিসেবে ৭০০তম ম্যাচ জিতলো রোনালদোরা। দ্বিতীয় সর্বাধিক ৬১১টি ম্যাচ জিতেছে চেলসি। আর্সেনাল জিতেছে ৬১০ ম্যাচ। আর রেড ডেভিলদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী লিভারপুল প্রিমিয়ার লিগে ম্যাচ জিতেছে ৫৯৮টি।

আরো পড়ুনঃ

অভিমানে ফুটবলকেই বিদায় জানালেন জিয়েখ

জয়ের ধারা ধরে রাখতে প্রতিপক্ষের মাঠে দিনে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল ইউনাইটেড। গোটা ম্যাচে ৫৫ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রাখে দলটি। যদিও গোলমুখে শট নেওয়ার ক্ষেত্রেও দুদলের লড়াই ছিল সমান-সমানে। ইউনাইটেড ১৫ শটের ৯টি রাখে লক্ষ্যে। আর লিডস ১৬ শটের ৬টি।

আক্রমণ প্রতি আক্রমণের ম্যাচে শুরুতে অধিনায়ক হ্যারি ম্যাগুয়ারের গোলে এগিয়ে যায় ইউনাইটেড। ম্যাচের ঠিক ৩৪তম মিনিটে লুক শর কর্নারে ডি-বক্সে হেডে গোলটি করেন বিশ্বের সবচেয়ে দামী ডিফেন্ডার। প্রথমার্ধে যোগ করা সময়ে স্যাঞ্চোর পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ।

ছবিঃ টুইটার

বিরতির পর আক্রমণের ধার বাড়ায় লিডস। দ্রুত গোল ও পেয়ে যায় দলটি। ১ মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে সমতায় ফিরে স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৫৩তম মিনিটে রদ্রিগো দারুণ গোলে ব্যবধান কমানোর ৫৯ সেকেন্ডের মধ্যেই সমতা টানেন ব্রাজিলিয়ান তারকা রাফিনিয়া। আরও একবার পয়েন্ট হারানোর শঙ্কা জাগে রেড ডেভিলদের শিবিরে।

আরো পড়ুনঃ
ফুটবলের প্রতি সামান্য দরদও নেই বাফুফের, দাবি সাবেক কোচ জর্জেভিচের

এমন সময় জ্বলে উঠেন ফ্রেড ও এলেঙ্গা। ম্যাচের ৭০তম মিনিটে জ্যাডোন স্যাঞ্চোর পাস থেকে সফরকারীদের এগিয়ে দেন ফ্রেড। ৮৮ত মিনিটে লিডস ইউনাইটেডে কফিনে শেষ পেরেক ঠুকেন দেন এলেঙ্গ। ব্রুনো ফার্নান্দেজের পাস পাস থেকে গোলটি করেন ফ্রেডের সঙ্গেই বদলি নামা ১৯ বছর বয়সী এই সুইডিশ ফরোয়ার্ড। বাকি সময় আর কোন গোল না হলে ৪-২ গোলের জয় নিয়ে বাড়ি ফিরে রালফ রাঙ্গনিকের দল। অবশ্য, দুর্দান্ত জয় পেলেও গোটা ম্যাচেই নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন রেড ডেভিলদের বড় তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

ছবিঃ ইন্টারনেট

আরো পড়ুনঃ

প্যারাগুয়ে ও ব্রাজিল ফুটবল খেলা ২০২২ এর খবর

টানা দুই জয়ে ২৬ ম্যাচে ১৩ জয় ও ৭ ড্রয়ে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এক ম্যাচ কম খেলে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে তিনে চেলসি। তাদের সমান ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে লিভারপুল। ২৬ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে আছে ম্যান সিটি। ২৪ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে ১৫-তে আছে মার্সেলো বিয়েলসার লিডস ইউনাইটেড।