শ্বশুর মৃত্যুর ৭ ঘণ্টা পর মারা গেলেন পুত্রবধূ

শ্বশুর মৃত্যুর ৭ ঘণ্টা পর মারা গেলেন পুত্রবধূ
শ্বশুর মৃত্যুর ৭ ঘণ্টা পর মারা গেলেন পুত্রবধূ

শ্বশুর মৃত্যুর ৭ ঘণ্টা পর মারা গেলেন পুত্রবধূ – ফেনীর দাগনভূঞায় শ্বশুরবাড়িতে মৃত্যুর সাত ঘণ্টা পর পুত্রবধূর মৃত্যু হয়েছে। রোববার (০৯ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার মাতুভূয়া ইউনিয়নের উত্তর আলীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উত্তর আলীপুর গ্রামের মোঃ বেলায়েত হোসেন (৬৫) ডায়াবেটিস ও হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন। এ কারণে তাকে ফেনী ডায়াবেটিস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার বিকেল ৫টার দিকে তার মৃত্যু হয়। লাশ বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

বেলায়েত হোসেনের মৃত্যুর খবর শুনে অসুস্থ হয়ে পড়েন কোহিনুর আক্তার (২৬) তার বড় ছেলে ওমানি প্রবাসী আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী। শ্বশুরের লাশ বাড়ি থেকে কবরস্থানে নিয়ে যাওয়ার সময় পুত্রবধূ কোহিনূর বুকে ব্যথা অনুভব করেন।

পরিবারের লোকজন তাৎক্ষণিক তাকে দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রোববার জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হয়।

স্বজনরা জানান, কোহিনূর আক্তারও দীর্ঘদিন ধরে হৃদরোগে ভুগছিলেন। তার দুই মেয়ের মধ্যে বড় মেয়ে ফাতিহা নূরের বয়স পাঁচ বছর এবং ছোট মেয়ে ফাইজা নূরের বয়স মাত্র তিন বছর। কোহিনুরের বাবার বাড়ি ফেনী সদর উপজেলার মধুই গ্রামে।

এদিকে বাবার মৃত্যুর খবর শুনে দেশের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন ওমানের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন। কিন্তু পথেই স্ত্রীর মৃত্যুর খবর শুনতে পান। তিনি বাকরুদ্ধ

স্থানীয় মাতুভূয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ঘটনা শুনে ওই বাড়িতে যাই। একই সঙ্গে পরিবারের দুই সদস্যের মৃত্যু খুবই হৃদয়বিদারক। শ্বশুর মৃত্যুর ৭ ঘণ্টা পর মারা গেলেন পুত্রবধূ