আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান: বিভিন্ন সময়কালের জরিপের পার্থক্যের কারণে বিভিন্ন ধরনের খতি রয়েছে। এই পরীক্ষার মধ্যে পার্থক্য কি? অথবা কোন খতিয়ান সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য তা এখানে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। eporcha gov bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খতিয়ান বা ই-পর্চা অনুসন্ধান করার আগে খতিয়ানের প্রকারগুলি জানুন।
  • সিএস খতিয়ান Cadastral Survey
  • এসএ খতিয়ান State Acquisition Survey
  • আরএস খতিয়ান Revisional Survey
  • বিএস খতিয়ান/সিটি জরিপ City Survey
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

অনলাইনে খতিয়ান অনুসন্ধান করা খুবই সহজ। অনলাইনে খতিয়ান অনুসন্ধান বা ই পর্চা অনুসন্ধান করলে আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট হয় না। কেননা ম্যানুয়াল ভাবে খতিয়ান অনুসন্ধান করতে গেলে খতিয়ান নাম্বার দাগ নাম্বার সহ আরও বিভিন্ন তথ্য নিয়ে সেটেলমেন্ট অফিসে যোগাযোগ করতে হয়, যা করতে শ্রম অর্থ উভয়টিই বেশি ব্যয় করতে হয়।
আপনি খুব সহজেই eporcha gov bd  ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করতে পারবেন, এজন্য আপনাকে কিছু ধাপ অনুসরন করতে হবে এবং আমাদের তথ্যগুলো ফোলো করতে হবে।
অনলাইনে আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান এর ধাপ গুলো নিচে দেয়া হলো;
ধাপ ১ঃ প্রথমে আপনাকে এই ওয়েব সাইটে জেতে হবে, eporcha gov bd
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
ধাপ ২ঃ উপরের চিত্রের তথ্য অনুয়ায়ী আপনাকে ফলো করতে হবে, এজন্য “খতিয়ান” অপশনটিতে ক্লিক করুন।
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
ধাপ ৩ঃ এরপর প্রথমে আপনাকে বিভাগ নির্বাচন করতে হবে। এরপর আপনি যে খতিয়ান দেখতে চান সেটির উপর ক্লিক করুন যেমন আমরা আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করতে চাই এজন্য আর এস সিলেক্ট করব।
এরপর জেলা নিরর্বাচন করতে হবে, জেলা নির্বাচন করার পর উপজেলা নির্বাচন করতে হবে। সবশেষে আপনাকে মৌজা নির্বাচন করুন। সকল তথ্য দেয়া হয়ে গেলে, ক্যাপচা পূরণ করে ” অনুসন্ধান করুন” বাটনটিতে ক্লিক করতে হবে।
বিঃ দ্রঃ সকল তথ্য সঠিকভাবে প্রদান করার পরেও যদি আপনার ভূমির কোনো তথ্য না আসে, তাহলে ধরে নিবেন আপনার এলাকার খতিয়ান এখনো www.land.gov bd এই ওয়েবসাইটের আওতায় eporcha gov bd সাইটে অন্তর্ভুক্ত হয়নি।
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
ধাপ ৪ঃ এর পর আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করতে, আপনি যদি আপনার খতিয়ান অনলাইন থেকে ডাউনলোড করতে চান বা সার্টিফাইড কপি পেতে চান তাহলে “আবেদন করুন” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
ধাপ ৫ঃ আপনি দুইভাবে আপনার খতিয়ান অনুসন্ধান অনুসন্ধান এর তথ্য পেতে পারেন। নিচের চিত্রে লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন যে ‘খতিয়ান নকল টাইপ’ শিরোনামে দুইটি অপশন রয়েছে অপশনে লেখা রয়েছে ” অনলাইন কপি” আর আরেকটি অপশনে লেখা রয়েছে ” সার্টিফাইড কপি” আপনি যদি অনলাইন থেকে আপনার এস আর খতিয়ান অনুসন্ধান টি ডাউনলোড করে নিতে চান তাহলে “অনলাইন কপি” লেখা অপশনটি সিলেক্ট করবেন।
ধাপ ৬ঃ আবেদন বাটনে ক্লিক করলে নিচের চিত্রের মত আরেকটি ইন্টারফেস আপনার সামনে ওপেন হবে।মূলত এই স্টেপে আপনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করতে হবে।
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
ধাপ ৭ঃ  যদি আপনি সার্টিফাইড কপি পেতে চান। তাহলে “সার্টিফাইড কপি” অপশনে অথবা আপনি জদি অনলাইন কপি পেতে চান তাহলে অনলাইন কপি সিলেক্ট করুন।
সার্টিফাইড কপি মানে হলো, আপনার খতিয়ানের কাগজটি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কর্তৃক স্বাক্ষরিত থাকবে। সার্টিফাইড কপি ডাকযোগে আপনার ঠিকানায় পাঠিয়ে দেওয়া হবে।
বিঃ দ্রঃ আপনি যদি সার্টিফাইড কপি পেতে চান তাহলে আপনাকে নির্দিষ্ট হারে ফি প্রদান করতে হবে।
ধাপ ৮ঃ অনলাইন কপি পেতে আপনাকে জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার এবং জন্মতারিখ বসিয়ে “সঠিক হয়েছে” বাটনে ক্লিক করুন। আপনি দেখতে পাবেন, একটি পপআপ উইন্ডো আপনার সামনেও ওপেন হয়ে যাবে। এরপর নিচের অংশে ফোন নাম্বার ও ইমেইল এড্রেস বসাতে হবে। তারপর ক্যাপচা পূরণ করে নিচে স্ক্রল করুন।

আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান – সার্টিফাইড কপি  

আপনি যখন সার্টিফাইড কপি নির্বাচন করবেন, তখন আপনি ‘ডেলিভারি প্রয়োজনীয়’ শিরোনামের অধীনে আরও দুটি বিকল্প দেখতে পাবেন। প্রথমটি “সাধারণ” এবং দ্বিতীয়টি “ইমার্জেন্সি”। অর্থাৎ, আপনি যদি জরুরী ভিত্তিতে খতিয়ান অনুসন্ধানের অনুলিপি পেতে চান, তাহলে জরুরী বিকল্পটি নির্বাচন করুন।
সেক্ষেত্রে আপনাকে কিছু অতিরিক্ত টাকা চার্জ করতে হবে। আর খতিয়ানের কপি পেতে চাইলে সাধারনভাবে সার্চ করুন তাহলে নরমাল অপশন সিলেক্ট করুন।

 

তারপর আপনি ‘মেথড অফ ডেলিভারি’ শিরোনামে আরও দুটি অপশন দেখতে পাবেন। প্রথমটি “অফিস কাউন্টার” এবং দ্বিতীয়টি “পোস্ট দ্বারা”। আপনি যদি অফিস কাউন্টারের মাধ্যমে গ্রহণ করতে চান তবে অফিস কাউন্টার বিকল্পটি নির্বাচন করুন এবং আপনি যদি পোস্টের মাধ্যমে পেতে চান তবে পোস্ট দ্বারা নির্বাচন করুন। বাংলাদেশ সরকারের উন্নত ডিজিটাল ল্যান্ড সার্ভিস ওয়েবসাইট www.land.gov bd-এর অধীনে eporcha gov bd সাইটের মাধ্যমে আপনি সহজেই ঘরে বসে খতিয়ান অনুসন্ধানের সার্টিফাইড কপি পেতে পারেন।

আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

 

নিচে স্ক্রোল করার পর নিচের ছবির মত একটি ইন্টারফেস আপনার সামনে আসবে। আপনাকে কত ফি দিতে হবে তা উল্লেখ থাকবে। আর যে তথ্য দিয়ে আপনি সেই ফি পরিশোধ করবেন তার তথ্য সেখানে দেওয়া হবে। আপনি নীচের ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন, পেমেন্টের জন্য দুটি বিকল্প রয়েছে। Eporcha gov bd www.land.gov bd সাইটের অধীনে এই সাইট থেকে সহজেই পেমেন্ট করতে পারবেন। আর তাই খতিয়ান বা ই-পেপার খুঁজতে আপনাকে কোনো ঝামেলায় যেতে হবে না।

প্রথম বিকল্পটি হল ekpay এবং দ্বিতীয় বিকল্পটি হল upay। আপনি যদি বিকাশ, নগদ বা রকেট অর্থাত্ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অর্থ প্রদান করতে চান তবে আপনাকে প্রথম ekpay বিকল্পটি নির্বাচন করতে হবে। আর আপনি যদি upay এর মাধ্যমে অর্থ প্রদান করতে চান তাহলে upay নির্বাচন করুন।

ekpay অপশনে ক্লিক করলে নিচের ছবির মত একটি ইন্টারফেস খুলবে। সেখান থেকে আপনাকে সিলেক্ট করতে হবে কোন মোডে আপনি পেমেন্ট করতে চান। তিনটি বিকল্প রয়েছে কার্ড, মোবাইল ব্যাংকিং এবং ইন্টারনেট ব্যাংকিং। আপনি যে অর্থপ্রদান করতে চান তা নির্বাচন করুন। কারণ এই ধাপটি ই-পেপার অনুসন্ধানে গুরুত্বপূর্ণ।

 

আমি আপনাদের দেখাবো কিভাবে মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে পেমেন্ট করতে হয় তাই মোবাইল ব্যাংকিং অপশন সিলেক্ট করা হয়েছে। মোবাইল ব্যাংকিং বিকল্প নির্বাচন করার পর, আপনি বিকাশ, নগদ বা রকেটের মাধ্যমে কীভাবে অর্থ প্রদান করবেন? আপনি যে বিকল্পটির মাধ্যমে এটি করতে চান সেটি নির্বাচন করুন।

বিকাশ অপশনে ক্লিক করলে নিচের ছবির মত আরেকটি প্রম্পট দেখতে পাবেন। আপনি সেখানে ডেভেলপমেন্ট নম্বর দিলে আপনার নম্বরে একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠানো হবে। যাচাইকরণ কোড নম্বর লিখুন। যাচাইকরণ কোড নম্বর প্রবেশ করার পরে, প্রক্রিয়া বিকল্পে ক্লিক করুন। সেখানে ক্লিক করার পর ডেভেলপমেন্ট পিন নম্বর দিয়ে পেমেন্ট সম্পন্ন হবে।

আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান
আরো জানুন,

পেমেন্ট সঠিকভাবে সম্পন্ন হলে নিচের ছবির মত আরেকটি ইন্টারফেস আপনার সামনে খুলবে। সেখান থেকে আপনি আবেদনের রসিদ প্রিন্ট করতে পারবেন। আপনি যদি এটি প্রিন্ট করতে না চান তবে আপনি এটি PDF ফরম্যাটে ডাউনলোড করতে পারেন। আপনি যদি জানতে চান কিভাবে পিডিএফ ফরম্যাটে আরএস খতিয়ান তদন্ত বা ই-পেপার ইনকোয়ারি অনলাইন রসিদ ডাউনলোড করবেন, তাহলে আপনি এখান থেকে জানতে পারেন।

পাঁচ থেকে সাত দিনের মধ্যে, আরএস খতিয়ান অনুসন্ধান বা www.land.gov bd ওয়েবসাইটের অধীনে eporcha gov bd থেকে আপনি যে আবেদন জমা দিয়েছেন তা আপনার দেওয়া ঠিকানায় পৌঁছে যাবে।

Leave a Comment

You cannot copy this post.