ইতালি ভিসা খরচ : কত টাকা প্রয়োজন?

ইতালি ভিসা খরচ – ইতালি যাওয়ার সময় ভিসা খরচ নির্ধারণ হতে পারে একে অপরে ভিন্ন ধরণের ভিসার জন্য। সিজনাল ভিসা ও নন-সিজনাল ভিসার জন্য ভিসা খরচে পার্থক্য থাকে। সম্প্রতি জানা গিয়েছে যে, ইতালি যেতে হলে সিজনাল ভিসা প্রাপ্ত করলে খরচ কম পড়বে

ভিসা খরচ সাধারণভাবে আপনার আবেদনের ধরণ, সময়কাল, ও আবেদনকারীর জাতি বা পাসপোর্টের ধরণে নির্ধারণ হতে পারে। সেই সাথে, ভিসা সেবা দিয়ে আপনি আপনার জন্য যে ভিসা প্রয়োজন তা জেনে নিতে পারেন।

ইতালি ভিসা খরচ

সর্বশেষ তথ্য প্রকাশিত হয়নি, তাই ইতালি ভিসা খরচ সম্পর্কে নির্দিষ্ট পরিস্থিতি জানতে আপনাকে আপনার নিকটস্থ ইতালিয়ান কোনও দূতাবাসে অথবা ইতালি ভিসা সেবার সাথে যোগাযোগ করতে বলা হবে।

আপনি সবসময় নতুন সম্পর্কে আপনার নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাস বা ভিসা সেবা সাইটের সাথে সাক্ষরিত তথ্যের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন, কারণ তাদের নির্দিষ্ট জরিপত্রে পরিবর্তন হতে পারে।

ইতালি যেতে গিয়ে ভিসা নিতে হলে প্রথমেই আপনার জাতি ও আবেদনের ধরণ বোঝা প্রয়োজন। ভিসা খরচ নির্ধারণ হতে পারে এই দুটি উল্লিখিত বিষয়ের উপরে।

1. সিজনাল ভিসা: ইতালিতে সময় সময়ে বিশেষ ধরণের ভিসা দেওয়া হয়, যেগুলি বিশেষ কার্যক্রম বা মৌসুমে যাওয়ার জন্য ম্যাপ করা হয়। এই সিজনাল ভিসার জন্য খরচ সাধারণভাবে কম হতে পারে। এই ধরণের ভিসার জন্য বেশি খরচ প্রয়োজন নেই।

2. নন-সিজনাল ভিসা: আপনি যদি ইতালি যেতে অন্য কোন সময়ে পরিবর্তন হতে চান, সেক্ষেত্রে নন-সিজনাল ভিসা আবেদন করতে হবে। এই ধরণের ভিসার খরচ সাধারণভাবে বেশি হতে পারে।

ইতালি ভিসা খরচ সাধারণভাবে পাসপোর্টের ধরণ, আবেদনের ধরণ, ও সময়কালের উপর নির্ভর করে। এই তথ্য পরিবর্তন হতে পারে, তাই সর্বশেষ তথ্যের জন্য আপনাকে আপনার নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাস বা ভিসা সেবা সাইটে যেতে হতে পারে।

ইতালি ভিসা 

ইতালি ভিসার মূল ক্যাটাগরি দুটি। সিজনাল ও নন সিজনাল ইতালি ভিসা। সিজনাল ভিসার মধ্যে আবার কয়েকটি প্রকারভেদ আছে।

  • ইতালি স্পন্সর ভিসা
  • ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা
  • ইতালি কৃষি ভিসা
  • ইতালি মেডিকেল ভিসা
  • ইতালি টুরিস্ট ভিসা

ইতালি স্পন্সর ভিসা

ইতালি প্রতি বছর বিভিন্ন দেশ থেকে প্রচুর জনশক্তি আমদানি করে। কারণ ইতালিতে কাজের লোকের অনেক অভাব। এছাড়াও, উন্নয়নশীল দেশগুলিতে কম দক্ষ কর্মী রয়েছে। এ কারণে প্রতি বছর ইতালি বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক আমদানি করে কাজ করার জন্য।

আমাদের দেশ থেকেও এ বছর ইতালির স্পন্সর ভিসা চালু হয়েছে। ইতালি ভ্রমণের আগে, আপনাকে জানতে হবে ইতালি ভিসার খরচ কত। কারণ ইতালি যেতে অনেক টাকা লাগে। বাংলাদেশ থেকে ইতালি যেতে চাইলে। তারপর আপনাকে আনুষ্ঠানিকভাবে ইতালিতে প্রবেশ করতে হবে।

এছাড়াও ইতালি স্পন্সর ভিসার জন্য একটি বৈধ পাসপোর্ট প্রয়োজন। যে কোম্পানির অধীনে আপনি ইতালিতে কাজ করবেন তার নিয়োগপত্র। আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি। ইতালি ভ্রমণের জন্য একজন প্রাপ্তবয়স্ক হতে হবে। এছাড়া বর্তমান করোনা মহামারীর জন্য ভ্যাকসিন নিতে হবে।

ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা

আমাদের দেশের অনেক শিক্ষার্থী প্রতি বছর উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে যায়। একইভাবে আপনি চাইলে উচ্চশিক্ষার জন্য ইতালি যেতে পারেন। ইতালিতে উচ্চ শিক্ষা অর্জনের জন্য অনেক ডিগ্রি এবং প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ইতালির স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আপনার কিছু যোগ্যতার প্রয়োজন হবে।

আপনি যখন ইতালি স্পন্সরড ভিসা পাবেন, আপনার কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। কিন্তু স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে ইতালি গেলে। আপনাকে কয়েকটি ভিন্ন উপায়ে যোগ্যতার প্রমাণ প্রদান করতে হবে। আপনাকে প্রথমে এইচএসসি পরীক্ষায় সন্তোষজনক ফলাফল অর্জন করতে হবে। আপনার অবশ্যই একটি বৈধ পাসপোর্ট এবং জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবে।

ইতালি মেডিকেল ভিসা

বাংলাদেশ থেকে কোনো ব্যক্তি চিকিৎসার জন্য ইতালি যেতে চাইলে সেই ব্যক্তিকে ইতালির মেডিকেল ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। আমরা সবাই জানি, ইতালি উন্নত চিকিৎসা সেবার দেশ। ইতালির চিকিৎসা ব্যবস্থা খুবই উন্নত। এ কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে মানুষ ইতালিতে চিকিৎসা নিতে আসেন।

ইতালি মেডিকেল ভিসার আগে, ইতালি ভিসার খরচ সম্পর্কে জানতে হবে। আপনি যদি ইতালি মেডিকেল ভিসা নিচ্ছেন, তাহলে আপনার যথেষ্ট অর্থের প্রয়োজন হবে। যাদের অনেক টাকা ও রোগের চিকিৎসা বাংলাদেশ থেকে হচ্ছে না। সেই রোগের চিকিৎসার জন্য ইতালি যেতে পারেন।

কিন্তু ইতালি মেডিকেল ভিসার জন্য আপনার কিছু শব্দ লাগবে। ধরুন আপনার একটি গুরুতর অসুস্থতা আছে। আপনি সেই রোগের চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশের একজন বড় ডাক্তারের কাছে গেছেন। বাংলাদেশের ডাক্তার আপনাকে ইতালিতে একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করতে বলে। তাহলে আপনি ইতালির মেডিকেল ভিসা পাবেন।

ইতালি কৃষি ভিসা

ইতালি কৃষি ভিসা প্রাপ্ত করতে নিম্নলিখিত ধাপগুলি অনুসরণ করতে হয়:

  1. আবেদন: প্রথমে আপনাকে ইতালি কৃষি ভিসা আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। ফরমটি আপনি নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাস থেকে পেতে পারেন বা তাদের সময়সূচী ও শর্তাবলী সহ ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করতে পারেন।
  2. যথাযথ কৃষি শিক্ষা: আপনার আবেদনের জন্য যথাযথ কৃষি শিক্ষা প্রমাণ করতে হবে। এই শিক্ষার সাথে আপনার যোগ্যতা প্রমাণ করতে হতে পারে।
  3. জরুরী ডকুমেন্টস: আবেদনের সময়, আপনাকে আপনার পাসপোর্ট, পাসপোর্ট সাইজ ছবি, ইতালি কৃষি কোম্পানি থেকে চাকুরীর প্রেরণ পত্র, আপনার কৃষি শিক্ষার সার্টিফিকেট, ইতালি ভিসা আবেদন ফি, ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সাথে সহযোগিতা করতে হবে।
  4. ইন্টারভিউ: কিছু সময়ে আবেদনকারীদের ইতালি ভিসা ইন্টারভিউ দেওয়া হতে পারে। ইন্টারভিউ সময়ে আপনাকে আপনার কৃষি ক্যারিয়ারের উদ্দেশ্য ও ইতালি যেতে কেন ইচ্ছুক তা স্পষ্ট করতে হতে পারে।

ইতালি কৃষি ভিসা নিতে সময় লাগতে পারে এবং আবেদন প্রক্রিয়া সঠিকভাবে অনুসরণ করা প্রয়োজন। আপনি নিজের নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাস থেকে সর্বশেষ তথ্য এবং আপনার যোগ্যতা সহ সমস্ত নির্দিষ্ট নির্দেশনা পেতে পারেন।

ইতালি মেডিকেল ভিসা

ইতালি মেডিকেল ভিসা হলো এমন একটি ভিসা যা ইতালি যাওয়ার জন্য মেডিকেল বা চিকিৎসা ক্ষেত্রে কাজ করতে চাইলে প্রয়োজন হয়। এই ভিসার অধীনে আপনাকে কিছু নির্দিষ্ট শর্তাবলী পূরণ করতে হবে, যেগুলি নিম্নরূপ:

  1. প্রয়োজনীয় পেপারওয়্ক: আপনাকে প্রয়োজনীয় পেপারওয়্ক সাবমিট করতে হবে, যেমন আপনার চিকিৎসা ডিগ্রি, চিকিৎসা কোর্সের নির্দেশিকা, পেশাদান সার্টিফিকেট, ও অন্যান্য যে কোন সংশোধনীয় ডকুমেন্টস।
  2. ইতালি ভিসা আবেদন: প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সহ ইতালি মেডিকেল ভিসা আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। আবেদন ফরমটি ইতালির দূতাবাস থেকে প্রাপ্ত করা যায় অথবা তাদের সময়সূচী ও অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা যায়।
  3. ইন্টারভিউ: কিছু সময়ে আবেদনকারীদের ইতালি মেডিকেল ভিসা ইন্টারভিউ দেওয়া হতে পারে। ইন্টারভিউ সময়ে আপনাকে আপনার মেডিকেল ক্যারিয়ারের উদ্দেশ্য ও ইতালি যেতে কেন ইচ্ছুক তা স্পষ্ট করতে হতে পারে।
  4. ইতালি মেডিকেল ভিসা ফি: ভিসা আবেদনের সাথে ফি প্রদান করতে হতে পারে। এই ফির পরিমাণ সম্পর্কে সর্বোচ্চ বেশি জানতে আপনি নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাস থেকে তথ্য পেতে পারেন।

ইতালি মেডিকেল ভিসা পেতে সময় লাগতে পারে এবং আবেদন প্রক্রিয়া সঠিকভাবে অনুসরণ করা প্রয়োজন। আপনি নিজের নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাস থেকে সর্বশেষ তথ্য এবং আপনার যোগ্যতা সহ সমস্ত নির্দিষ্ট নির্দেশনা পেতে পারেন।

আরো জানতে পারোঃ

ইতালি টুরিস্ট ভিসা

ইতালি টুরিস্ট ভিসা ইতালি যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় একটি ভিসা, যা পর্যটকদের ইতালি দেখার সুযোগ দেয়। ইতালি টুরিস্ট ভিসা পেতে আপনাকে নিম্নলিখিত কয়েকটি পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হবে:

  1. ভিসা আবেদন: প্রথমে আপনাকে ইতালি টুরিস্ট ভিসা জন্য আবেদন করতে হবে। এই আবেদন ফরম প্রাপ্ত করতে ইতালির দূতাবাসে যাওয়া যায় অথবা তাদের অনলাইন পোর্টালে আবেদন করতে পারেন।
  2. প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস: আবেদনের সাথে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সাবমিট করতে হবে, যেমন আপনার ভ্রমণের উদ্দেশ্য, টুরিস্ট প্ল্যান, আর্থিক সাক্ষরতা প্রমাণ, পাসপোর্ট ইত্যাদি।
  3. ভিসা ইন্টারভিউ: কিছু সময়ে আবেদনকারীদের ভিসা ইন্টারভিউ দেওয়া হতে পারে, যেখানে আপনি আপনার টুরিস্ট প্ল্যান এবং অন্যান্য সংশোধনীয় তথ্য স্পষ্ট করতে হতে পারে।
  4. ভিসা ফি: ভিসা আবেদনের সাথে একটি ভিসা ফি প্রদান করতে হতে পারে। এই ফির পরিমাণ সরবরাহ সহায়ক ইতালির দূতাবাসে প্রাপ্ত করা যেতে পারে।
  5. আপনার পাসপোর্ট: আপনার পাসপোর্ট যদি ইতালি ভিসা স্ট্যাম্প প্রাপ্ত করেন, তা আপনি ভ্রমণের সময় সঙ্গী করতে হবে।

আপনি আপনার ইতালি টুরিস্ট ভিসা প্রক্রিয়া সঠিকভাবে অনুসরণ করে সহজেই ইতালি ঘুরতে যেতে পারেন। আপনি নিজের নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাস থেকে সর্বশেষ তথ্য এবং আপনার যোগ্যতা সহ সমস্ত নির্দিষ্ট নির্দেশনা পেতে পারেন।

ইতালি ভিসা খরচ (প্রাক্তন তথ্য)

ভিসা ধরণ খরচ (বিশেষ সময়ে) খরচ (নন-সিজনাল)
ভ্রমণের উদ্দেশ্য খরচ খরচ
সিজনাল কম বেশি
নন-সিজনাল বেশি বেশি

 

ইতালি যেতে আপনার ভিসা খরচ নির্ধারণ করার জন্য, সবসময় সর্বশেষ তথ্য প্রাপ্ত করতে না পারলে আপনি আপনার নিকটস্থ ইতালিয়ান দূতাবাসে যোগাযোগ করতে পারেন।

ইতালি ভিসা খরচ নিজের জন্য সঠিকভাবে জেনে নেওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ যাত্রার আগে।

“ইতালি ভিসা খরচ : কত টাকা প্রয়োজন?”-এ 2-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন