প্রাকৃতিক উপায়ে প্রেসার কমানোর উপায়

আপনি তিনটি উপায়ে প্রাকৃতিক ভাবে প্রেসার কমাতে পারবেন। এক খাবার খাওয়া কন্টোলের মাধ্যমে, দুই নিয়োমিত শরীর চর্চার মাধ্যমে, তিন পর্যাপ্ত ঘুমের মাধ্যমে।

প্রাকৃতিক উপায়ে প্রেসার কমাতে চাইলে দৈনিক আপনার রুটিনে অন্তত আধা ঘণ্টা শরীরচর্চা বা ব্যায়াম রাখুন। প্রতিদিন সকাল বেলা খালি পেটে হাটুন। আপনার শরীরে অত্যাধিক চর্বি থাকলে তা কমিয়ে ফেলুন, শরীর চর্চার মাধ্যমে। ভাজা জাতীয় খাবার বা প্রক্রিয়াজাত ও তৈলাক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন।

প্রাকৃতিক উপায়ে প্রেসার কমানোর উপায়

চর্বিযুক্ত খাবার, ধূমপান, শারীরিক কার্যকলাপের অভাব ও প্রক্রিয়াজাত খাবার উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি বাড়াতে পারে। সুতরাং আপনাকে দ্রুত প্রাকৃতিক উপায়ে প্রেসার কমাতে হলে ভাজাপোড়া, তৈলাক্ত জাতীয় খাবার ও ধূমপান, এড়িয়ে চলতে হবে এবং ভিটামিন, শকসবজী জাতীয় খাবার বেশি খান। এবং নিয়োমিত শরীর চর্চা করুন।

প্রাকৃতিক উপায়ে প্রেসার কমানোর উপায় এর একটি বড় উপায় হলো পর্জাপ্ত ঘুমান। আপনাকে অবশ্যই নিয়োম মাফিক ঘুমাতে হবে। যেমন- প্রতিদিন রাত দশটার সময় ঘুমাতে জাওয়া এবং ভোর ছয়টার সময় ঘুম থেকে উঠা তার পর খোলা বাতাসে একটু হাটতে জাওয়া। সকাল আটটার মধ্যে নাশ্তা শেষ করা ইত্যাদি।

আরো পড়ুনঃ

জখন আপনার পেসার বেড়ে যাবে তখন সকল কাজ বাদ দিয়ে মেডিটেশন করুন। এটায় সবচেয়ে তাৎক্ষণিক ফল পেতে সাহায্য করবে। এক কথায় আপনার জীবন ধারার পরিবর্তন আনুন, দেখবেন সব ঠিক হয়ে গেছে।

প্রাকৃতিক উপায়ে প্রেসার কমানোর উপায়

হাই প্রেসার কমানোর ঔষধের নাম?

মিথাইলডোপা ২৫০ মিলি গ্রাম, প্রোপানোলোল ১০/৪০/৮০মিগ্রাম, এটিনোলোল ৫০/১০০মিগ্রাম।, মেটোপ্রোলল টরট্রেট, এমলোডিপিন ২৫/৫০/মিগ্রাম, লোসারটেন পটাশিয়াম ২৫/৫০/১০০মিগ্রাম।

হাই প্রেসার কমানোর জন্য কি খাওয়া উচিত?

হাই প্রেসার কমানোর জন্য ভিটামিন সি সমৃদ্ধ বিভিন্ন ফল যেমন — জাম্বুরা, কমলা এবং লেবু ইত্যাদি ফলগুলো উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। সেজন্য বেশী বেশী করে খাওয়া উচিত।

লো প্রেসার কমানোর উপায়?

ঘন ঘন হালকা খাবার খান। বেশি সময় খালি পেটে থাকলে রক্তচাপ আরও কমে যেতে পারে। * পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন। * খাবার সময় পাতে এক চিমটি করে লবণ খেতে পারেন।

হাই প্রেসার কমানোর সহজ উপায়?

দৈনিক আপনার রুটিনে অন্তত আধা ঘণ্টা শরীরচর্চা রাখুন। >> প্রক্রিয়াজাত ও তৈলাক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন। চর্বিযুক্ত খাবার, ধূমপান, শারীরিক কার্যকলাপের অভাব ও প্রক্রিয়াজাত খাবার উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি বাড়াতে পারে।

হাই প্রেসার হলে কি খাওয়া উচিত না?

চর্বিযুক্ত খাবার, ধূমপান, শারীরিক কার্যকলাপের অভাব ও প্রক্রিয়াজাত খাবার উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি বাড়াতে পারে।

হাই প্রেসার হলে কি করা উচিত?

দৈনিক আপনার রুটিনে অন্তত আধা ঘণ্টা শরীরচর্চা রাখুন। হাই প্রেসার কমানোর জন্য ভিটামিন সি সমৃদ্ধ বিভিন্ন ফল যেমন — জাম্বুরা, কমলা এবং লেবু ইত্যাদি

কি কি ফল খেলে প্রেসার কমে?

জাম্বুরা, কমলা এবং লেবু ইত্যাদি

হাই প্রেসার রোগীর খাবার তালিকা?

হাই প্রেসার কমানোর জন্য ভিটামিন সি সমৃদ্ধ বিভিন্ন ফল যেমন — জাম্বুরা, কমলা এবং লেবু ইত্যাদি