ভৈরব টু কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী

ভৈরব টু কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী: আপনি কি ভৈরব টু কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী খুঁজছেন অনলাইনে? আশা করি আমরা আপনাকে ভৈরব টু কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী এর গুরুত্বপূর্ণ এবং সঠিক তথ্য তুলে ধরব। এখানে আপনি ভৈরব থেকে কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী এর টিকেট, ভাড়ার তালিকা ইত্যাদি পেতে পারেন।

আপনি যদি ভৈরব থেকে কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী এবং টিকিটের মূল্য খুঁজে করে থাকেন,  তবে আপনি বাংলাদেশ রেলওয়ের উপর ভিত্তি সঠিক তথ্য আমাদের ওয়েব সাইটে পেতে সক্ষম হবেন।

আমার মনে হয় এই নিবন্ধটি আপনাকে ভৈরব থেকে কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী সকল তথ্য জানতে সহায়তা করবে। আপনার প্রয়োজনীয় সকল তথ্য সংগ্রহ করতে পোষ্টটি মনোযোগ দিয়ে ভালভাবে পড়ুন।

ভৈরব টু কিশোরগঞ্জ ট্রেনের সময়সূচী

বাংলাদেশ রেলওয়ে তথ্য অনুযায়ী,  ভৈরব বাজার থেকে কিশোরগঞ্জ রুটে এগারোসিন্ধুর প্রভাতি (৭৩৭), এগারোসিন্ধুর গোধুলি (৭৪৯) ও কিশোরগঞ্জের এক্সপ্রেস (৭৮১) ট্রেন চলাচল করে। নিচে ট্রেনগুলির ভৈরব বাজার স্টেশন থেকে ছাড়ার সময় এবং কিশোরগঞ্জ স্টেশনে পৌছানোর সময়সূচী দেওয়া হলোঃ

ট্রেনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
এগারোসিন্ধুর প্রভাতি(৭৩৭) বুধবার ০৯ঃ০৬ ১১ঃ১৫
এগারোসিন্ধুর গোধুলি(৭৪৯) নাই ২০ঃ৪২ ২২ঃ৪৫
কিশোরগঞ্জের এক্সপ্রেস(৭৮১) শুক্রবার ১২ঃ৪০ ১৫ঃ০০

ভৈরব বাজার থেকে কিশোরগঞ্জ ট্রেনের ভাড়া তালিকা

নিচে ভৈরব বাজার থেকে কিশোরগঞ্জগামী এগারোসিন্ধুর প্রভাতি (৭৩৭), এগারোসিন্ধুর গোধুলি (৭৪৯) ও কিশোরগঞ্জের এক্সপ্রেস (৭৮১)) ট্রেনের টিকিটের মূল্য দেওয়া হলোঃ

আসন বিভাগ টিকিটের মূল্য
শোভন ৫০ টাকা
শোভন চেয়ার ৬০ টাকা
প্রথম আসন ৯০ টাকা
প্রথম বার্থ ১১৫ টাকা
স্নিগ্ধা ১১৫ টাকা
এসি ১৩৩ টাকা
এসি বার্থ ২০২ টাকা

সর্তকতাঃ

  • ট্রেন ভ্রমণ করার সময় আপনাকে অবশ্যই সর্তকতা অবলম্বন করে ট্রেনে উঠতে হবে। ট্রেনে ওঠার সময় কখনই তাড়াহুড়া করা যাবে না।
  • ট্রেনে ওঠার পুর্বে আপনার টিকিট নিশ্চিত করতে হবে যে আপনি টিকিট সরবরাহ করেছেন কিনা।
  • ট্রেন চলাকালীন সময় মাথা অথবা হাত বাইরে দেওয়া যাবে না। ট্রেনের ছাদের উপরে অবস্থান করা যাবে না।
  • টিকেট কেনার পর ট্রেন ছাড়ার আধাঘন্টা পূর্বে রেলস্টেশনে উপস্থিত হতে হবে। আপনার প্রয়োজনীয় সামগ্রী ট্রেনে তুলেছেন কিনা তা নিশ্চিত হতে হবে।

You cannot copy this post.