রিজাইন লেটার লেখার সঠিক নিয়ম

রিজাইন লেটার
রিজাইন লেটার

রিজাইন লেটার লেখার সঠিক নিয়ম জেনে নিন কাজে লাগবে। ইংরেজি রিজাইন লেটার এর বাংলা হল পদত্যাগপত্র যদিও সবাই এটাকে রেজাইন লেটার হিসেবেই বেশি চেনে। রিজাইন লেটার  চাকরি ছেড়ে দেওয়ার সময় প্রয়োজন অনেক বেশি হয়। তাহলে প্রথম যে প্রশ্নটি আসে তা হল, পদত্যাগপত্র কীভাবে লিখবেন? যদিও অনেকের কাছে এটি খুব কঠিন কিছু নয়। খুব কঠিন বিষয়, যারা জানেন না তাদের জন্য। তাদের জন্য আমরা এই পোস্টে রিজাইন লেটার লেখার সঠিক নিয়ম লিখেছি।

রিজাইন লেটারের শুরুটা কেমন হওয়া উচিত

  • আবেদনের শুরুটা এমনভাবে লিখুন যাতে পাঠক পুরো আবেদনটি পড়তে আগ্রহী হয়।
  • সঠিক কারণটি পরিষ্কারভাবে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করুন। আপনার যদি ব্যক্তিগত সমস্যা থাকে তবে আপনি এইভাবে লিখতে পারেন যে আবেদনে ব্যক্তিগত সমস্যার কারণে আপনি অব্যাহতি জানাচ্ছেন। কারণটি সঠিকভাবে ব্যাখ্যা করতে ব্যর্থ হলে আবেদনের গুণমান বজায় থাকবে না এবং  মালিক-পক্ষ আপনার প্রতি ক্ষুণ্ণ হতে পারেন।
  • ঠিকানার ক্ষেত্রে, আপনি সর্বদা Mr./Mr./Madam ইত্যাদি লিখতে পারেন।
  • আবেদনপত্রের সঠিক বর্ণনা করুন।। কোনোভাবেই অপ্রয়োজনীয় বাক্য লিখবেন না।

রিজাইন লেটারের সমাপ্তি কেমন হওয়া উচিত

  • আপনার পদত্যাগপত্র সংক্ষিপ্ত, বিনয়ী এবং আকর্ষণীয় করার চেষ্টা করুন।
  • লেখার পর দুবার চেক করতে ভুলবেন না। আপনার লিখিত আবেদনে কোন সমস্যা বা ভুলত্রুটি যেনো না থাকে।
  • আবেদনকারীর পদবি, নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বর বা আইডি কার্ড কোড আবেদনের শেষে লিখতে হবে।

রিজাইন লেটার লেখার কিছু নিয়ম কানুন

  • আবেদনপত্র অফসেট পেপার বা উচ্চমানের কাগজে জমা দেওয়া যাবে বা কম্পিউটারে টাইপ করা যাবে।
  • আবেদনপত্র জমা দেওয়ার তারিখ দিতে হবে।
  • তারিখের পরে, যার কাছে আবেদন করা হচ্ছে তাকে সাধারণত তার নাম এবং যে ঠিকানায় আবেদনটি পাঠানো হবে তার সাথে লিখতে হবে।
  • আবেদনের শেষে আপনার নাম, বর্তমান ঠিকানা, মোবাইল নম্বর সঠিকভাবে লিখুন।
  • আপনি পরিষেবাতে যোগদানের তারিখ এবং বছর লিখুন।
  • আপনি যে তারিখে প্রতিষ্ঠান থেকে অবসর নেবেন তা লিখুন।
  • আপনার পদত্যাগ পত্রে 2-3 স্বাক্ষর প্রয়োজন হবে।
  • মালিক পক্ষকে আপনার আবেদন অনুমোদন এবং নতুন কর্মচারীর নিয়োগ দেওয়া সহ এক মাসের সময় দিতে পারেন।
  • কিন্তু আপনার যদি কোনও চাকরীতে ১ সপ্তাহ বা তার চেয়েও কম সময়ের মাঝে জয়েন করতে হয় তাহলে, মালিক-পক্ষ
  • এর সাথে আলোচনা করে সংক্ষিপ্ত সময়ের মাঝেই অব্যাহতি নিতে পারবেন।
  • রিজাইন লেটারে সম্বোধন শুষ্ঠ ও সুস্পষ্ট হতে হবে।
  • আবেদনের বাচনভঙ্গি সুস্পষ্ট ও সহজ হতে হবে। কোনও রকম দৃষ্টিকটু শব্দ ব্যবহার করা যাবে না। এতে বিরূপ প্রতিক্রিয়া হতে পারে।
  • সংক্ষিপ্তভাবে, ইতিবাচক, সহজ ভাষায় এবং গুছিয়ে আবেদনটি লেখা সম্পন্ন করুন।
  • অহেতুক বাক্য লিখা হতে বিরত থাকুন।
  • চেষ্টা করবেন হাতে কিছু মাস সময় রেখে অব্যাহতির আবেদনের তারিখ বসাতে ।
  • রিজাইন লেটারটি হাতে লিখলে খেয়াল রাখতে হবে যেনো কোনও রকম কাটাছিড়া ও ওভার রাইটিং যেনো না হয়।
  • আবেদনটি অবশ্যই নির্ভুল, সুষ্ঠু, সহজভাষি, পরিষ্কার এবং গুছানো হতে হবে।