শবে বরাতের নামাজের নিয়ম, নিয়ত, ফজিলত, দোয়া

শবে বরাতের নামাজের নিয়ম হলো শবে বরাতের রাতে এশার ৪ রাকাত সুন্নত ও ৪ রাকাত ফরজ নামাজ শেষ করবেন। এরপর বেতের নামাজ না পড়ে শবে বরাতের নামাজের নিয়ত করবেন। শবে বরাতের নামাজ হলো নফল নামাজ তাই দুই রাকাত করে পড়বেন। অর্থাৎ দুই রাকাত পরপর সালাম ফেরাবেন। এভাবে আপনি সর্বনিম্ন ১২ রাকাত থেকে যত ইচ্ছা তত পড়তে পারবেন। তাবে ফজর পর্যন্ত পড়তে পারবেন। শবে বরাতের নামাজ শেষ হলে বেতের পড়বেন।

শবে বরাতের নামাজের নিয়ত

নাওয়াইতুআন্ উছল্লিয়া লিল্লা-হি তাআ-লা- রাকআতাই ছালা-তি লাইলাতিল বারা-তিন্ -নাফলি, মুতাওয়াজ্জিহান ইলা-জিহাতিল্ কাবাতিশ্ শারীফাতি আল্লা-হু আকবার।

বাংলায় নিয়তঃ

কেবলামূখী হয়ে দুই রাকাত লাইলাতুল বরাতের নফল নামাজ আদায় করার জন্য ইকতেদা বা নিয়ত করলাম আল্লাহ আকবার।

শবে বরাতের নামাজের ফজিলত

দুই রাকাত নফল নামাজের প্রতি রাকাতে সূরা ফাতিহা পড়ার পর, ১ বার আয়াতুল কুরসি এবং ১৫ বার করে সূরা এখলাছ পড়ে সালাম ফিরানোর পর ১২ বার দুরূদ শরীফ পড়ার ফজিলত হলো রুজিতে বরকত, দুঃখ-কষ্ট হতে মুক্তি লাভ করবে, গুনাহ হতে মাগফিরাতের বকশিস পাওয়া যাবে। দু’রাকাত করে আট রাকাত নফল নামাজ এর মধ্যে প্রতি রাকাতে সূরা ফাতিহার পর, সূরা এখলাছ ৫ বার করে পড়ার ফজিলত হলো গুনাহ থেকে পাক হবে, দু’আ কবুল হবে এবং বেশি বেশি নেকী পাওয়া যাবে।

আরো পড়ুনঃ

শবে বরাতের নামাজের মোনাজাত

রাব্বানা জ্বালামনা আনফুসানা ওয়া ইল্লাম তাগফিরলানা ওয়া তার হামনা লানা কূনান্নাঁ মিলাল খাসিরীন।
রাব্বানা আতিনা ফিদ্দনইয়া হাসানাতাঁও ওয়া ফিল আ-খিরাতি হাসানাতাঁও ওয়া ক্বিনা-আযাবান্নাঁর।

আল্লাহুম্মা বায়িদ বাইনা ওয়া বাইনা খাতায়ানা কামা বা আদতা বাইনাল মাশরিক্বি ওয়াল মাগরিব। আল্লাহুম্মা নাককিনা মিনাজ জুনূব কামা ইয়ূনাক্কাছ ছাউবুল আবয়াদু মিনাদদানাস। আল্লাহুম্মাগসিল খাতায়-না বিল মা-ই ওয়াছ ছালজি ওয়াল বারদ। রাব্বির হাম হুমা কামা রাব্বিইয়ানী ছগিরা।

রাব্বানা ফাগফিরলানা যুনুবানা ওয়া কাফফির আন্না সাইয়্যিআতিনা ওয়া তাওয়াফ্‌ফানা মায়াল আবরার। (সূরা আল ইমরান, আয়াতঃ ১৯৩)

আশা করি আর বেশি শব্দের প্রয়োজন নেই শবে বরাতের নামাজের নিয়ম, নিয়ত,ফজিলত, ও দোয়া জানার জন্য। সম্পূতি আমরা আমাদের সাইটে ফুটবল বিশ্বকাপ জয়ী দলের তালিকা প্রকাশ করেছি।