ইতিহাস কাকে বলে

ইতিহাস কাকে বলে: ইতিহাস শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে ইতিহ নামক একটি শব্দ থেকে যার অর্থ হলো  “ঐতিহ্য”। ঐতিহ্য হচ্ছে মানব জাতীর অতীত জীবনের অভ্যাস, শিক্ষা, ভাষা, শিল্প, সাহিত্য-সংস্কৃতি যা ভবিষ্যতের জন্য সংক্ষিত থাকে।

ইতিহাস কাকে বলে

 
ইতিহাস কাকে বলে সমাজ ও রাষ্ট্রে নিরন্তর বয়ে যাওয়া ঘটনা প্রবাহকে ইতিহাস বলা যায়।
ইতিহাস এবং history শব্দের উৎপত্তি  ‘ইতিহ’ শব্দ থেকে
ইতিহ অর্থ ঐতিহ্য

হেরোডটাস ও থুসিডাইডিসের মতে ইতিহাস

‘Historia’ শব্দটি প্রথম ব্যবহার করেন গ্রিক ঐতিহাসিক হেরোডোটাস (প্রাচীন গ্রিক: Ἡρόδοτος, রোমানাইজড:
বৈজ্ঞানিক ইতিহাসের জনক বলা হয় থুসিডাইডিসকে
ইতিহাসের জনক কে ? হেরোডোটাস
ইতিহাস শব্দের অর্থ কি?

এমনই ছিলো বা এরকম ঘটেছিলো।

ইতিহাসের লিখিত উপাদান সমকালিক সাহিত্য, ধর্মগ্রন্থ, পর্যটকদের বিবরণী, সরকারি দলিলপত্র, রাজ রাজার জীবনী প্রভৃতি লিখিত উপাদানের অন্তর্ভুক্ত।
ইতিহাসের অলিখিত উপাদান অলিখিত উপাদান হিসেবে চিহ্নিত করা হয় ধর্মীয় ও সাধারণ স্থাপত্য অর্থাৎ ইমারতসমূহ, বিভিন্ন ভাস্কর্য বা মূর্তি, মুদ্রা, তাম্রলিপি, শিলালিপি, মানুষের ব্যবহার্য তৈজস পত্র, চিত্রকলা প্রভৃতি।
খ্যাতিমান ইতিহাসবিদ ই. এইচ. কার (Edward Hallett Carr) বলেছেন  ‘অতীতের সাথে বর্তমানের যোগসূত্র তৈরি করার বিদ্যাই হচ্ছে ইতিহাস’। ঐতিহাসিক ই. এইচ. কারের মতে, ইতিহাস হলো বর্তমান ও অতীতের মধ্যে এক অন্তহীন সংলাপ।
 
এই পোষ্টের রিলেটেড পোস্ট
হোমপেজে এখানে ক্লিক করো

ইতিহাস কাকে বলে -FAQ

ইতিহাস কাকে বলে

সমাজ ও রাষ্ট্রে নিরন্তর বয়ে যাওয়া ঘটনা প্রবাহকে ইতিহাস বলা যায়।

ইতিহাসের জনক কে ?

হেরোডোটাস।

আধুনিক ইতিহাসের জনক কে?

লিওপোন্ড ফন র‍্যাংকে।

Leave a Comment

You cannot copy this post.