ওলট কম্বল গাছের উপকারিতা

ওলট কম্বল গাছের উপকারিতা ওলট কম্বল গাছের ওষুধ একটি পরীক্ষিত ওষুধ। উলটকম্বল গাছের পাতা, ডাল, মূল, বাকল আমাদের জন্য খুবই উপাকারি। বিশেষ করে বিভিন্ন রোগের ওষুধ তৈরিতে এই উলটকম্বল গাছ ব্যবহৃত হয়।

কোষ্ঠ্যকাঠিন্য দূর করতে উলটকম্বল গাছের উপকারিতা

উলটকম্বল গাছের বাকল ও ডাঁটা পানিতে ভিজিয়ে রাখলে আঠালো পদার্থ বের হয় যা কোষ্ঠ্যকাঠিন্য দূর করে। এছাড়াও পাতার ডাঁটা প্রস্রাবের জ্বালাপোড়া উপশম, আমাশয় রোগের জন্য উপকারী।

স্ত্রী রোগের ক্ষেত্রে উলটকম্বল গাছের উপকারিতা

উলটকম্বল গাছের পাতা ও কাণ্ডের রস গনোরিয়া, ফোঁড়া ও স্ত্রী রোগে উপকারী। উলটকম্বল গাছের মূলের ছাল থেকে এক ধরনের আঠাজাতীয় রস বের হয়, যা গর্ভাশয়ের শক্তি বৃদ্ধি করে। বিশেষ করে বন্ধ্যত্ব রোগীদের ক্ষেত্রে উলট কম্বলের মূলের ছাল ভীষণ উপকারী। পাতা ও কাণ্ডের রস গনোরিয়া রোগে বিশেষ উপকারী। দীর্ঘদিন থেকে অনিয়মিত ঋতুস্রাব, জরায়ু সংক্রান্ত রোগ, বন্ধ্যত্ব, ব্যথাসহ বিভিন্ন রোগ নিরাময়ে কার্যকর এটি বলে জানান ভেষজ বিশেষজ্ঞগণ।

আরো পড়ুন;

গবাদিপশুর ক্ষেত্রে উলটকম্বল গাছের উপকারিতা

গবাদিপশুর পাতলা পায়খানা, বিলম্ব প্রজনন এবং হাঁস-মুরগির বিভিন্ন চিকিৎসায় উলটকম্বলের ব্যবহার রয়েছে। এ থেকে তৈরি ওষুধের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

অন্যান্য ক্ষেত্রে উলটকম্বল গাছের উপকারিতা

ওলট কম্বল, শুলফা বীজ, আওবেল, সারাকা ইন্ডিকা, চায়নারুট, শুকনা পুদিনা, শিয়ালকাঁটা, কপচিনি, জটামাংসী, তজ, বড় এলাচসহ অন্যান্য উপাদান নিয়ে ওষুধ তৈরি করা হয়।

উলটকম্বল কি?

ভেষজ উদ্ভিদের মধ্যে অন্যতম ওষুধই গাছ হলো উলটকম্বল। উলটকম্বল দেশে জন্মানো ভেষজ উদ্ভিদের মধ্যে অন্যতম। যার ইংরেজি নাম ডেভিলস কটন। এটি একটি গুল্মজাতীয় চিরহরিৎ গাছ। উলটকম্বল গাছের পাতা, ডাল, মূল, বাকল বিভিন্ন রোগের ওষুধ তৈরিতে ব্যবহৃত হয়।

ওলট কম্বল গাছের উপকারিতা ছাড়াও আপনি কি অন্যান্য পোস্ট পড়তে আগ্রহী?

উলটকম্বল গাছ কোথায় পাবেন?

উলটকম্বল গাছ বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকায় আপনি পাবেন। উলটকম্বল গাছের ইংরেজি নাম ডেভিলস কটন। এটি বাংলাদেশের উপকূলীয় পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া ও ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া সড়কের পাশে দু’একটি গাছ পাওয়া যাই। এছাড়া কাঁঠালিয়া উপজেলা সদর থেকে এক কিলোমিটার দুরে একটি মোবাইল টাওয়ারের সম্মূখ সড়কের পাশে পাবেন। এ ছাড়া এটি পাবেন এশিয়ার প্রধান অঞ্চল এর আদি নিবাসে। উলট কম্বল ফুল মূলত বর্ষার ফুল। এখন শরতে এ ফুল টিকে থাকবার কথা নয়।

ওলট কম্বল গাছের উপকারিতা
ওলট কম্বল গাছ

উলটকম্বল গাছ চেনার উপায়

উলটকম্বল গাছ সাধারনত ৮ থেকে ১০ ফুট লম্বা এবং ২-৩ মিটার উচ্চতাবিশিষ্ট হয়ে থাকে। এটি বেশি মোটা হয় না। গাছের ছালে রেশমের মতো আঁশ থাকে, ফুলের রঙ মেরুন। ফল পঞ্চকোণবিশিষ্ট লোমাবৃত। কাঁচা অবস্থায় সবুজ এবং পাকলে ধূসর বর্ণের হয়।

উলটকম্বল গাছ

উলটকম্বল গাছের চাহিদ অনেক বেশি থাকলেও গাছের সংখ্যা অনেক কম। আপনি উলটকম্বল গাছ ব্যবহার করতে পারবেন আপনার অনেক রোগের ক্ষেত্রে, তবে আপনাকে ব্যবহার এর সময় অবশ্যই উলটকম্বল গাছের সম্পর্কে জানতে হবে। আশা করি আপনি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়লে উলটকম্বল গাছের সম্পর্কে সম্পর্ন ধারনা পাবেন।