প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম, প্রত্যয়ন পত্র, নমুনা, আবেদন, PDF

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়মঃ প্রত্যায়ন পত্র হল কোন প্রতিষ্ঠান অথবা ব্যক্তি কর্তৃত কোন বিষয়ের লিখিত সার্টিফিকেট। প্রত্যয়ন পত্রের মধ্যে রয়েছে, চারিত্রিক সনদ, বিবাহ সনদ, বেকারত্ব সনদ ইত্যাদি।  এছাড়াও প্রত্যয়ন পত্রের মধ্যে আরও রয়েছে,

প্রত্যয়ন পত্র কি

প্রত্যায়ন পত্র হল কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অথবা কোন ব্যক্তির দ্বারা লিখিত বিষয়বস্তু বা সার্টিফিকেট। প্রত্যয়নপত্র অনেক ধরনের হতে পারে তাদের মধ্যে কিছু হল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভিত্তিক এবং কোন ব্যক্তি ভিত্তিক। নিচে প্রত্যায়নপত্রের ধারণা দেওয়া হলঃ

  • উত্তরাধিকার সনদ,
  • মৃত্যু সনদ,
  • জাতীয়তা সনদ,
  • ভুমিহীন সনদপত্র,
  • চারিত্রিক সনদ,
  • উপজাতি সনদ,
  • মুক্তিযোদ্ধা সনদ,
  • এতিম সনদ,
  • বিবাহিত সনদ,
  • অবিবাহিত সনদ,
  • বেকারত্ব সনদ,
  • পুনঃর্বিবাহ সনদ,
প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম
প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম

প্রত্যয়ন পত্রের প্রকারভেদঃ

প্রত্যায়ন পত্র আমরা দুইভাবে পেয়ে থাকি চেয়ারম্যানের দ্বারা প্রত্যয়ন পত্র এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রত্যয়ন পত্র। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর প্রত্যয়ন পত্রের মধ্যে রয়েছে প্রাইমারি স্কুল থেকে এবং হাই স্কুল থেকে পাওয়া প্রত্যায়ন পত্র, কলেজ বা ইউনিভার্সিটি থেকে।

চেয়ারম্যান প্রত্যয়ন পত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রত্যয়ন পত্র
  • চারিত্রিক সনদ
  • বিবাহিত সনদ
  • অবিবাহিত সনদ
  • বেকারত্ব সনদ
  • পুনঃ বিবাহ সনদ
  • ভূমিহীন সনদ
  • চারিত্রিক সনদ
  • উপবৃত্তি সনদ
  • আর্থিক সহযোগিতা সনদ

প্রত্যয়ন পত্রের জন্য আবেদন

আমাদের অনেক চাকরিতে সার্টিফিকেট অপরিহার্য। এটি পেতে বেশিরভাগ সময় সময় অপচয়ের পাশাপাশি অনেক অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়। অনেক সময় চেয়ারম্যান বা কমিশনার ব্যস্ত থাকায় সার্টিফিকেট পেতে দেরি হয়। আবার সার্টিফিকেট হাতে পেতে প্রয়োজনীয় কাজের সময় শেষ। তাই কিভাবে এত ঝামেলা এড়াবেন এবং অনলাইনে সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন করবেন এবং খুব দ্রুত তা পাবেন নিচে দেওয়া হল।

prottoyon.gov.bd এই ওয়েবসাইটে যেতে হবে প্রত্যয়ন পত্রের জন্য আবেদন করতে হলে। তারপর আপনার শংসাপত্রের ধরন নির্বাচন করুন এবং পরবর্তী পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন৷ নিচে ভিডিওটি দেওয়া হলঃ

প্রাইমারি স্কুল প্রত্যয়ন পত্র / স্কুলের প্রত্যয়ন পত্র নমুনা

স্কুলের প্রত্যয়ন পত্র বিশেষ কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে দেওয়া হয়। বিশেষ করে প্রাইমারি স্কুল অথবা হাই স্কুল থেকে স্কুল প্রত্যয়ন পত্রের নমুনা দেওয়া হয়। স্কুলের প্রত্যয়ন পত্র নমুনা জানতে চাই অনেকেই প্রশ্ন করেছেন? তাদের উদ্দেশ্যে এই অংশ স্কুলের প্রত্যয়ন পত্র নমুনা দেওয়া হলো।

প্রত্যয়ন পত্র
প্রত্যয়ন পত্র

স্কুল প্রত্যয়ন পত্র ডাউনলোড

প্রত্যয়ন পত্রের বিষয়বস্তু সম্পর্কে আমরা অনেক কিছু জেনে ফেলেছি। এখন আমরা জানব কিভাবে নিজে প্রত্যায়ন পত্র ডাউনলোড করবে। ডাউনলোড করতে কিছু করতে হবে না শুধুমাত্র নিচের দেওয়া লিংকে ক্লিক করুন এবং pdf স্কুলের প্রত্যয়ন পত্র নমুনা পেতে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করুন

হাই স্কুল প্রত্যয়ন পত্র / প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম

স্কুল কলেজ থেকে প্রত্যয়ন পত্রের জন্য আবেদন পত্র নমুনা নিম্নের ধরনের হয়ঃ

তারিখঃ……………………

বরাবর,

অধ্যক্ষ

সরকারী সিটি কলেজ,

খুলনা ।

বিষয়ঃ প্রত্যয়ন পত্রের জন্য আবেদন

জনাব,

বিনীত নিবেদন এই যে, আমি মোঃ…………, পিতাঃ……………. মাতাঃ…………. , গ্রামঃ………….., ডাকঘরঃ…………., থানাঃ…………., জেলাঃ………….  । আমি আপনাদের প্রতিষ্ঠানের অনার্স ৩য় বর্ষের একজন নিয়মিত ছাত্র, রোলঃ…………, শিক্ষাবর্ষঃ ২০১৮-২০১৯, আমি পাসপোর্ট বের করিতে ইচ্ছুক । এমতাবস্থায় পাসপোর্ট অফিসের কতৃপক্ষ আমার নিকট একটি প্রত্যয়ন পত্র চেয়েছে । উক্ত কারনে আমার একখানা প্রত্যয়ন পত্র দরকার ।

অতএব, জনাবের নিকট আকুল আবেদন এই যে, আমি যাহাতে একখানা প্রত্যয়ন পত্র পাইতে পারি তাহার সু-ব্যবস্থা করতে আপনার মর্জি হয় ।

বিনীত নিবেদক

(ক)

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রত্যয়ন পত্র

সাধারনত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রত্যয়ন পত্র দিয়ে থাকে প্রধান শিক্ষক। তো প্রধান শিক্ষকের প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম –

স্মারক নং- প্র.পি.কা/

তারিখঃ ১২/৩/১৪২

প্রত্যয়ন পত্র

এতদ্বারা প্রত্যয়ন করা যাচ্ছে যে, নাম………….., পিতাঃ…………… মাতাঃ…………….., গ্রামঃ…………….., ডাকঘর…………….. উপজেলাঃ……………, জেলাঃ…………..। সে ২০** ইং সালে অত্র প্রতিষ্ঠানেরঃ ……………..  শ্রেণির ছাত্র/ছাত্রী ছিল এবং ২০** ইং সালের বার্ষিক পরীক্ষা/ এসএসসি/এইসএসসি অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের সহিত উত্তীর্ণ হয়। সে বিদ্যালয়ের যাবতীয় পাওনা পরিশোধ করেছে। আমি যতদূর জানি তার চরিত্র ভাল। ভর্তি বহির বর্ণনানুযায়ী তার জন্ম তারিখ ০১/০১/২০০০ ইং।

বিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে সে কোনো প্রকার নিয়ম শৃংখলা পরিপন্থী কাজে জড়িত ছিল নাআমি তার ভবিষ্যৎ জীবনের সাফল্য কামনা করি।

প্রধান শিক্ষক……….

[ক] উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকা।

সরকারি চাকরির প্রত্যয়ন পত্র / অফিসিয়াল প্রত্যয়ন পত্র

অফিসিয়াল প্রত্যয়ন পত্র কিভাবে লিখবেন তার একটি সঠিক নির্দেশনা দেওয়া হলঃ

একজন ব্যক্তি যখন সরকারি চাকরি করে তখন প্রায় প্রত্যয়ন পত্রের দরকার হয়। আর সরকারি চাকরির প্রত্যয়ন পত্র দপ্তর প্রধানের থেকে সংগ্রহ করতে হয়। চাকরির প্রত্যয়ন পত্রের নমুনাঃ

গনপ্রজানতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

ডাক বিভাগ, ঢাকা

স্মারক নংঃ    তারিখঃ

প্রত্যয়ন পত্র

এই মর্মে প্রত্যয়ন করা যাচ্ছে যে নাম………….., পিতাঃ…………… মাতাঃ…………….., গ্রামঃ…………….., ডাকঘর…………….. উপজেলাঃ……………, জেলাঃ…………..। তিনি বিগত দুই বছর ধরে অত্র প্রতিষ্ঠানে অফিস সহকারি হিসেবে কর্মরত আছেন।  আমার জানা মনে তিনি তার দায়ীত্ব ও কর্তব্য অত্যন্ত নিষ্টা, সততা ও দক্ষতার সাহিত পালন করে আসছে। তার স্বভাব চরিত্র ভালো।

আমি তাহার সর্বাঙ্গীন মঙ্গল কামনা করি।

সাক্ষর……….

প্রধান প্রকৌশলি,

বাংলাদেশ ডাক বিভাগ।

চেয়ারম্যান প্রত্যয়ন পত্রঃ

উক্ত প্রত্যয়ন পত্র দরকার পড়ে সাধারনত কোন চারিত্রিক বৈশিষ্ঠ প্রকাশ করতে। যেমন টা কোন চাকরিতে নিয়োগদানের পূর্বে।

চেয়ারম্যান কার্যালয়

১১ নং ঝাউদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ

ঝাউদিয়া, খুলনা।

স্মারক নংঃ    তারিখঃ

প্রত্যয়ন পত্র

এই মর্মে প্রত্যয়ন করা যাইতেছে যে, নাম………….., পিতাঃ…………… মাতাঃ…………….., গ্রামঃ…………….., ডাকঘর…………….. উপজেলাঃ……………, জেলাঃ…………..। আমি তাকে ব্যক্তিগতভাবে চিনি ও জানি। সে জন্মসূত্রে অত্র ইউনিয়নের একজন স্থায়ী বাসিন্দা এবং তার স্বভাব, চরিত্র ভালো। আমার জানা মতে সে সমাজ বা রাষ্ট্রবিরোধী কোন কর্মকান্ডের সাথে জড়িত নহে।

আমি তার সার্বিক উন্নতি ও মঙ্গল কামনা করি।

চেয়্যার ম্যান………..

ঝাউদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ।

আরো জানুনঃ

প্রত্যয়ন পত্র FAQ

প্রত্যয়ন পত্র কি?

প্রত্যায়ন পত্র হল কোন প্রতিষ্ঠান অথবা ব্যক্তি কর্তৃত কোন বিষয়ের লিখিত সার্টিফিকেট।

প্রত্যায়ন পত্র কি কি ধরনের হতে পারে?

প্রত্যয়নপত্র অনেক ধরনের হতে পারেঃ ১। উত্তরাধিকার সনদ, ২। মৃত্যু সনদ, ৩। জাতীয়তা সনদ, ৪। ভুমিহীন সনদপত্র, ৫। চারিত্রিক সনদ, ৬। উপজাতি সনদ, ৭। মুক্তিযোদ্ধা সনদ, ৮। এতিম সনদ, ৯। বিবাহিত সনদ, ১০। অবিবাহিত সনদ, ১১। বেকারত্ব সনদ, ৫। পুনঃর্বিবাহ সনদ,

Leave a Comment

You cannot copy this post.